শিরোনাম
  লাকসামে টানা ৪০ দিন নামাজ পড়ে সাইকেল পেল ১৯ শিশু-কিশোর       লাকসামে নেসলে বিডি’র গোডাউনে অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি       লাকসামের সাখাওয়াত হোসাইন মামুন জেসিআই বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন’র চেয়ারম্যান নির্বাচিত       কুমিল্লায় নিখোঁজের তিন দিনেও সন্ধান মিলেনি স্কুল ছাত্র ইয়াসিন আরাফাতের        লাকসামের আজগরা হাজী আলতাপ আলী হাইস্কুল এণ্ড কলেজের এসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা       কিছু বিপদগামী নেতা দলের ভেতর অন্তঃকোন্দল সৃষ্টি করার পায়তারা করছে: আজগরা ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল       এএসপি আনিসুল করিমের কবরে বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের শ্রদ্ধাঞ্জলি       অনলাইনে কুমিল্লা সরকারি সিটি কলেজে একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষা শুরু       প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ       লাকসাম পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে সম্ভাব্য প্রার্থী নবাব ফয়জুন্নেছার পরিবারের সদস্য আয়াজ    


ফারুক আল শারাহ: নাঙ্গলকোটের গোহারুয়া হাসপাতালের দুর্দশার চিত্র সাড়ে ১৩ বছরের। প্রয়োজনীয় চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী ও যন্ত্রপাতি কিছুই নেই। কোনরকম জোড়াতালি দিয়ে চিকিৎসা দেয়া সেই হাসপাতালেই রহস্যজনক কারণেই ভর্তি করা হয় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীকে। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী স্থানীয় স্বাস্থ্যবিভাগের উপর ক্ষুব্ধ হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ওই রোগীকে লক্ষীপুরের রামগঞ্জে স্থানান্তর করা হয়।

জানা যায়, ২০০৪ সালের ১৫ এপ্রিল নাঙ্গলকোট উপজেলার জোড্ডা পশ্চিম ইউনিয়নের গোহারুয়া গ্রামে ২০ শয্যা হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। দুই বছর পর ২০০৬ সালের ১৩ জুন গোহারুয়া ২০ শয্যা হাসপাতালের নির্মাণ কাজ শেষ হয়। ওই বছরের ১৭ অক্টোবর জনবল নিয়োগ না করেই তৎকালীন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী আমান উল্লাহ আমান হাসপাতালটির বহিঃবিভাগ উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনের প্রায় দুই মাসের মধ্যে জনবল সংকট ও প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতির অভাবে হাসপাতালটি বন্ধ হয়ে যায়। উপজেলার দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে হাসপাতালটির অবস্থান হওয়ায় নাঙ্গলকোট, সোনাইমুড়ি, মনোহরগঞ্জ ও সেনবাগ উপজেলার সীমান্ত এলাকার লক্ষাধিক মানুষ এ হাসপাতালটির সুফল পাওয়ার কথা থাকলেও বাস্তবে কিছুই পায়নি।

এলাকাবাসীর উন্নত চিকিৎসার কথা বিবেচনায় নিয়ে ওই এলাকার কৃতি সন্তান, বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম এর আন্তরিক প্রচেষ্টায় তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে হাসপাতালটি ২০১৫ সালের ৫ নভেম্বর চালু হলেও চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, জনবল সঙ্কট এবং প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতির অভাবে কিছুদিন পর বন্ধ হয়ে যায়। উদ্বোধনের পর থেকে দফায় দফায় চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়ায় হাসপাতাল এলাকা ঝোপ-জঙ্গলে ছেয়ে যায়। হাসপাতালের চারদিকে নিরাপত্তা বেস্টনি (সীমানাপ্রাচীর) না থাকায় গো-চারণ ভূমিতে পরিণত হয়। বিভিন্ন সময়ে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার (সেকমো) দিয়ে বহিঃবিভাগে জোড়াতালি দিয়ে চিকিৎসা দেয়া হলেও এলাকার মানুষ ক্ষোভে চিকিৎসা নিতে আসেননি।

অনেকটা পরিত্যক্ত গোহারুয়া হাসপাতালে পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা কার্যক্রম চালুর বিষয়ে ২০১৯ সালের ৩ ডিসেম্বর দেশের সর্বাধিক প্রচারিত ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন’-এ ‘সেই হাসপাতালটি দুর্দশা কাটেনি’ শীর্ষক শিরোনামে গুরুত্ব সহকারে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। ওই সংবাদটি প্রকাশের পর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে। এরপর থেকে একজন মেডিসিন ও একজন গাইনী চিকিৎসক হাসপাতালে গিয়ে নিয়মিত রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছে। এতে এলাকার রোগীরা কিছুটা হলেও চিকিৎসাসেবার সুফল পেতে থাকে।
এরই মধ্যে শনিবার (১৮ এপ্রিল) রাতে লক্ষীপুরের রামগঞ্জ থেকে আসা জনৈক করোনা রোগীকে ওই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ায় এলাকার মানুষ ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। আতঙ্কগ্রস্ত এলাকার কোন রোগী গতকাল রোববার হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিতে যাননি। হাসপাতালটির চারদিকে নিরাপত্তা বেষ্টনী (সীমানাপ্রাচীর) না থাকায় আশেপাশের বাড়িগুলোর মানুষ করোনা ঝুঁকির আতঙ্কে রয়েছেন।
এলাকাবাসীর পক্ষে স্থানীয় সমাজ সেবক এনামুল হক ভূঁইয়া জানান, গোহারুয়া হাসপাতালটির দুর্দশার চিত্র প্রায় সাড়ে ১৩ বছরের। হাসপাতালটিতে পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা কার্যক্রম চালু এলাকাবাসীর প্রাণের দাবি হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কার্যকর কোন পদক্ষেপ নেননি। অনেকটা জরাজীর্ণ হাসপাতালে রাতের অন্ধকারে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীকে নিয়ে আসা এলাকার ক্ষতি ছাড়া আর কিছুই নয়।

তিনি বলেন, বর্তমানে করোনা রোগীর চিকিৎসা খুবই স্পর্শকাতর বিষয়। অথচ এ হাসপাতালে কোন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকলেও এখানে করোনা রোগীকে নিয়ে আসা উদ্বেগের। উপজেলা সদরের হাসপাতালে করোনা রোগীকে চিকিৎসা না দিয়ে গ্রামীন জনপদের ঝুঁকিপূর্ণ হাসপাতালে নিয়ে আসা রহস্যজনক বলে তিনি অভিযোগ করেন। স্থানীয় স্বাস্থ্যবিভাগের এমন দায়িত্বহীনতায় এলাকাবাসী করোনা ঝুঁকিতে রয়েছেন বলে তিনি জানান। শেষ পর্যন্ত এলাকাবাসীর চাপে রোববার বিকেলে ওই রোগীকে লক্ষীপুরের রামগঞ্জ স্থানান্তর করা হয়।

এ বিষয়ে নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. দেবদাস দেবের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

কুমিল্লার একমাত্র করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ বিশেষজ্ঞ ডা. নিগর্স মেরাজ চৌধুরী বলেন, আমাদের আওতাধীন কুমিল্লা জেলার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত যে রোগীগুলো রয়েছে আমরা সার্বক্ষনিক তাদের খোঁজ-খবর নিয়ে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছি। কোন রোগী যাতে স্থান পরিবর্তন করতে না পারে এজন্য স্থানীয় প্রশাসনের উদ্যোগে সর্বোচ্চ সজাগ দৃষ্টি রাখা হচ্ছে। লক্ষীপুরের রামগঞ্জ থেকে রোগীটি পালিয়ে আসা দুঃখজনক। সেখানকার প্রশাসন তার চিকিৎসার বিষয়টি নিশ্চিত করার কথা। তারপরও তিনি যেহেতু চলে এসেছেন সর্বোচ্চ সতর্কতায় আপাতত আইসোলেশান সেন্টারে রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়। বিকেলে তাকে লক্ষীপুরের রামগঞ্জে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান। যে যেখানকার রোগী সেখানকার প্রশাসন তার চিকিৎসার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে-এটাই নিয়ম।




লাকসামে টানা ৪০ দিন নামাজ পড়ে সাইকেল পেল ১৯ শিশু-কিশোর

লাকসামে নেসলে বিডি’র গোডাউনে অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

লাকসামের সাখাওয়াত হোসাইন মামুন জেসিআই বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন’র চেয়ারম্যান নির্বাচিত

কুমিল্লায় নিখোঁজের তিন দিনেও সন্ধান মিলেনি স্কুল ছাত্র ইয়াসিন আরাফাতের 

লাকসামের আজগরা হাজী আলতাপ আলী হাইস্কুল এণ্ড কলেজের এসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা

কিছু বিপদগামী নেতা দলের ভেতর অন্তঃকোন্দল সৃষ্টি করার পায়তারা করছে: আজগরা ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল

এএসপি আনিসুল করিমের কবরে বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাসোসিয়েশনের শ্রদ্ধাঞ্জলি

অনলাইনে কুমিল্লা সরকারি সিটি কলেজে একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষা শুরু

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

লাকসাম পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে সম্ভাব্য প্রার্থী নবাব ফয়জুন্নেছার পরিবারের সদস্য আয়াজ

নাঙ্গলকোটে পুলিশের গুলিতে স্কুুল ছাত্রসহ ২ জন গুলিবিদ্ধ: এএসআই আবদুর রহিমের কর্মকান্ডে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ

লাকসামে তিনজনের শরীরে করোনার উপসর্গ : আইইডিসিআর-এ নমুনা প্রেরণ

প্রবাসীদের নিয়ে নাঙ্গলকোটের ইউপি মেম্বার জুলাসের কটুক্তি: দেশ-বিদেশে প্রতিবাদের ঝড় 

লাকসামের মুদাফরগঞ্জ বাজারে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে ব্যবসায়ী খুন

নাঙ্গলকোটে বিএনপি অফিসে তালা দিলেন আওয়ামী লীগ নেতা: অভিযোগ বিএনপি নেতার

নাঙ্গলকোটে চাচার সেফটি ট্যাঙ্ক থেকে ভাতিজার বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার!

লাকসামের জনপ্রিয় গাইনী বিশেষজ্ঞ ডা. লতিফা আহমদ লতা করোনায় মারা যাওয়ার গুজব ছড়ানো হলেও শতভাগ সুস্থ

লাকসামের সেই দুই সহোদরের পরিবারের নতুন ৬ জন করোনায় আক্রান্ত : সর্বমোট আক্রান্ত ১০

স্ত্রী ও সন্তানের স্বীকৃতি পেতে ডেনমার্ক থেকে নাঙ্গলকোটে এলেন এক নারী

নাঙ্গলকোটে আট বছর বয়সী চাচাতো বোনকে মুখ চেপে ধর্ষণ করতো আপন জেঠাতো ভাই